ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Du Mark certificate Application Process

মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলনের ধাপ সমূহ ও নিয়মাবলী:

  • ধাপ-১: এই ধাপে অনলাইনে আবেদনকারী প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করবেন। তথ্য প্রদান শেষে Generate Invoice বাটনে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপে যেতে পারবেন।সতর্কীকরণ: পরবর্তী ধাপে গেলে কোনো তথ্যই পরিবর্তন করা যাবে না। তথ্যে ভুল থাকলে মার্কস্ সার্টিফিকেট পেতে জটিলতা ও বিলম্ব হবে। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ফি প্রদান করা লাগতে পারে।
  • ধাপ-২: এই ধাপে Download Invoice বাটনে ক্লিক করে টাকা জমার রসিদ (মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলন) pdf ফরম্যাটে ডাউনলোড করতে হবে। পে-স্লিপটি প্রিন্ট করে জনতা ব্যাংকের বাংলাদেশের যেকোনো শাখার কাউন্টারে নির্ধারিত ফি জমা দেয়া যাবে। যেদিন ফি জমা দেয়া হবে, সেই কর্মদিবসের দিন শেষে ফি জমাদানের তথ্য সিস্টেমে প্রতিফলিত হবে এবং আবেদনকারী পরবর্তী ধাপে পৌঁছে যাবেন। ফি জমা হয়েছে কি না তা চেক করার জন্য Check Payment Status বাটনে ক্লিক করতে পারেন। ফি জমা হবার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পরবর্তী ধাপে না গেলে Claim Payment বাটনে ক্লিক করে ফি জমাদান সম্পর্কিত তথ্য প্রদান করতে পারবেন।

ধাপ-৩: এই ধাপে আবেদনকারী মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলনের আবেদন ফরম ও আবেদনপত্র জমাদানের রসিদ ডাউনলোড করতে পারবেন। মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলনের আবেদন ফরমটি লিগ্যাল সাইজ পেপারে প্রিন্ট করতে হবে। আবেদন ফরমটি জমা দেওয়ার পূর্বে নিম্নের বিষয়গুলো খেয়াল করা প্রয়োজন:

ক) নিয়মিত ছাত্র/ছাত্রীদের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কলেজের অধ্যক্ষ/হল প্রাধ্যক্ষ কর্তৃক ফরমের যথাস্থানে স্বাক্ষর করাতে হবে । বহিরাগত ডিগ্রী (পাস) এবং বহিরাগত মাস্টার ডিগ্রী পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে স্ব স্ব কেন্দ্রের অধ্যক্ষ অথবা যেকোনো গেজেটেড অফিসার কর্তৃক যথাস্থানে স্বাক্ষর করাতে হবে।

খ) ইংরেজিতে মার্কস্ সার্টিফিকেট উঠানোর ক্ষেত্রে বাংলায় ইস্যুকৃত মার্কস্ সার্টিফিকেট অত্র আবেদনপত্রের সঙ্গে অবশ্যই জমা দিতে হবে।

গ) আবেদন ফরমের যথাস্থানে ছবির উপরে সংশ্লিষ্ট অধ্যক্ষ/প্রাধ্যক্ষ/গেজেটেড অফিসার এমনভাবে স্বাক্ষর ও সীল মোহর করবেন যাতে ছবির উপর কিছু অংশ এবং ফরমের উপর কিছু অংশ থাকে।

ঘ) মার্কস্ সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা থানায় জি.ডি করতে হবে এবং আবেদনপত্রের সাথে জি.ডি’র কপি জমা দিতে হবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আবেদন ফরমটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসের ৩০৮ নম্বর কক্ষে অফিস চলাকালীন সময়ে জমা দিতে হবে। আবেদনপত্র জমাদানের রসিদটি প্রিন্ট করে মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলনের আবেদন ফরম জমাদানের সময় ফরম গ্রহণকারী কর্মকর্তার স্বাক্ষর/সীল সংগ্রহ করতে হবে। এই রসিদটি গুরুত্ব সহকারে সংরক্ষণ করতে হবে। মার্কস্ সার্টিফিকেট গ্রহণের সময় এই রসিদটি অবশ্যই জমা দিতে হবে।
আবেদনপত্রের সাথে জমা দিতে হবে:

১) সংশ্লিষ্ট অধ্যক্ষ/প্রাধ্যক্ষ/গেজেটেড অফিসার কর্তৃক প্রবেশপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি

২) ইংরেজিতে মার্কস্ সার্টিফিকেট উঠানোর ক্ষেত্রে বাংলায় ইস্যুকৃত মার্কস্ সার্টিফিকেট
মার্কস্ সার্টিফিকেট উত্তোলনের আবেদন ফরম জমা হয়ে গেলে আবেদনকারী স্বয়ংক্রিয়ভাবে ধাপ-৪ এ পৌঁছে যাবেন।

ধাপ-৪: মার্কস্ সার্টিফিকেট তৈরি না হওয়া পর্যন্ত আবেদনকারীকে এই ধাপে অপেক্ষা করতে হবে। প্রদত্ত তথ্যে ভুল থাকলে/সংশোধন প্রয়োজন হলে অনলাইনে নির্দেশনা দেয়া হবে। এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে অফিসে এসে তথ্য সংশোধন করা লাগতে পারে। তথ্য সংশোধন না হওয়া পর্যন্ত মার্কস্ সার্টিফিকেট প্রস্তুত করা হবে না। প্রদেয় তথ্য সঠিক থাকলে বা প্রয়োজনীয় তথ্য সংশোধন হয়ে গেলে মার্কস্ সার্টিফিকেট প্রস্তুত করা হবে। মার্কস্ সার্টিফিকেটটি প্রস্তুত হয়ে গেলে আবেদনকারী স্বয়ংক্রিয়ভাবে ধাপ-৫ এ পৌঁছে যাবেন। ধাপ-৫ এ পৌঁছার পূর্বে মার্কস্ সার্টিফিকেট সংগ্রহ করা যাবে না।

ধাপ-৫: মার্কস্ সার্টিফিকেট প্রস্তুত হয়ে গেলে আবেদনকারী এই ধাপে পৌছে যাবেন। আবেদনকারী পরীক্ষার প্রবেশপত্রের মূল কপি দেখিয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসের ৩০৮ নম্বর কক্ষ থেকে অফিস চলাকালীন সময়ে মার্কস্ সার্টিফিকেটটি সংগ্রহ করতে পারবেন। মার্কস্ সার্টিফিকেট সংগ্রহের সময় আবেদনপত্র জমাদানের রসিদটি অবশ্যই জমা দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের সুপারিশ ব্যতীত বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকট অন্য ব্যক্তির মার্কস্ সার্টিফিকেট গ্রহণের ব্যাপারে ”কোনো প্রকার ক্ষমতা অর্পণ” পত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker